একজন অ্যাকুপাংচারিস্ট হিসেবে ক্যারিয়ার গড়ার উপায়

অ্যাকুপাংচার বা নিডলিং থেরাপি মূলত চায়নার একটি ঐতিহাসিক চিকিৎসা পদ্ধতি। এটাকে ট্র্যাডিশনাল চায়নিজ মেডিসিনের (টিসিএম) মধ্যে অন্তর্ভুক্ত করা যায়। কোনো ব্যাথা বা ক্ষতের স্কিন পয়েন্টে বা নিয়ার নার্ভ এন্ডিং পয়েন্টে কিছু সূচ ঢুকিয়ে ব্যথা দূর করার পদ্ধতিই হচ্ছে অ্যাকুপাংচার। অ্যাকুপাংচার শব্দটি ল্যাটিন শব্দ ‘অ্যাকুস’ যার অর্থ সূচ এবং ‘পাংচুরা’ যার অর্থ পাংচার থেকে নেয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য খাতে প্রতিনিয়তই নতুন নতুন ক্লিনিক, চিকিৎসা পদ্ধতি, হাসপাতাল এবং অন্যান্য মেডিক্যাল ইক্যুইপমেন্ট তৈরি হচ্ছে। স্বাস্থ্য খাতের অতিরিক্ত চাহিদার কারণে অ্যাকুপাংচারিস্ট হিসেবে বহুসংখ্যক পদ শূণ্য থেকে যাচ্ছে।

Source: vpr.net

আপনি হয়তো স্বাস্থ্য খাতের সাথে সম্পৃক্ত নতুন কোনো চাকরি খুঁজছেন কিংবা পুরোনো চাকরি ছেড়ে নতুন কোনো চাকরির দিকে এগুতে চাচ্ছেন, সেক্ষেত্রে অ্যাকুপাংচারিস্ট হিসেবে ক্যারিয়ার গড়াটা বর্তমান সময়ের জন্য উপযুক্ত। চলুন জেনে আসি, কীভাবে একজন অ্যাকুপাংচারিস্ট হিসেবে ক্যারিয়ার গড়া সম্ভব।

Source: medicalnewstoday.com

একজন অ্যাকুপাংচারিস্ট কী কী কাজ করে থাকেন?

স্বাস্থ্য খাতে সেমি ইনভেসিভ সার্জন ও অ্যাকুপাংচারিস্টের কাজের ধরণ প্রায় কাছাকাছিই। চলুন জেনে নেয়া যাক একজন অ্যাকুপাংচারিস্টের কাজগুলো,

  • সেন্টার অ্যারাউন্ড রোগীর দেখাশোনা করা।
  • নিত্যনতুন রোগ ও ট্রিটমেন্ট সম্পর্কে গবেষণা ও রিসার্চ করা।
  • অ্যাকুপাংচার প্র্যাকটিসের জন্য প্র্যাকটিসের স্থান ও সময় নির্ধারণ করা।
  • অন্যান্য ফিজিশিয়ানের সাথে সম্পর্ক রক্ষা করা ও ব্যবসা ব্যবস্থাপনায় মনোযোগ দেয়া।
  • প্যাশেন্ট কেয়ার এক্টিভিটিস পালন করা।
  • অ্যাম্বুলেটরি ও অফিস বেইজড সার্জারি করা।
  • মেডিক্যাল রিসার্চ ও রোগী দেখার পাশাপাশি ট্রেইনিং প্রদান করা।
  • বিভিন্ন থেরাপি ও ট্রিটমেন্টের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা।
  • সব ধরণের অ্যাকুপাংচার সার্জারিতে অন্যান্য ফিজিশিয়ানদের সাহায্য নেয়া।
  • প্রাইভেট প্র্যাকটিস, অ্যাকাডেমিক প্র্যাকটিস ও ইনস্টিটিউশনাল প্র্যাকটিস ও হসপিটাল মেডিসিনের উপর কাজ করা।
  • বিভিন্ন ধরণের টেস্টিং করা ও সেই টেস্টের রিপোর্ট তৈরি করা।
  • রোগীর নিরাপত্তায় এনফোর্সিং ইন্ডাস্ট্রি, সরকারি ও অফিস স্ট্যান্ডারাইজড প্রসিডিউর মেইনটেন করা।
  • বিভিন্ন স্বাস্থ্য সম্পর্কিত ট্রেইনিং, অনুষ্ঠান ও কোলাবোরেশনে অংশগ্রহণ করা।
Source: healthcmi.com

একজন অ্যাকুপাংচারিস্টের ক্যারিয়ার কেমন হতে পারে?

একজন অ্যাকুপাংচারিস্ট হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করাটা অনেকের জন্যই স্বপ্নের মতো। তবে সরাসরি অ্যাকুপাংচারিস্ট হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে না পারলেও সিটি টেক, ক্যাট স্ক্যান টেকনোলজিস্ট, রেডিওলজিস্ট, ফিজিশিয়ান অ্যাসিস্টেন্ট, হিস্টোটেক, ফিজিক্যাল থেরাপিস্ট, প্রফেশনাল ফিজিশিয়ান অথবা এমআরআই টেকনিশিয়ান হিসেবে যেকোনো মেডিক্যাল বা ক্লিনিকে আপনার ক্যারিয়ার শুরু করতে পারেন।

Source: healthline.com

উপরোক্ত পদগুলো থেকে অভিজ্ঞতা অর্জন করে অর্থোপেডিক সার্জন, অ্যাকুপাংচারিস্ট, স্পাইন সার্জন, কার্ডিওথোরাসিস সার্জন, গ্যাস্ট্রোএন্টেরোলজিস্ট সার্জন অথবা কসমেটিক ইঞ্জেকটর হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে পারবেন। একজন সিনিয়র লেভেলের অ্যাকুপাংচারিস্ট হওয়ার পুর্বে আপনার অভিজ্ঞতার ঝুলিতে স্বাস্থ্য খাতের অন্য রকমের কিছু পেশার দক্ষতা ও যোগ্যতা থাকলে, তাতে আপনার জন্য অ্যাকুপাংচারিস্ট হওয়াটা অনেক সহজ হয়ে যাবে।

Source: expertise.com

একজন অ্যাকুপাংচারিস্ট হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে, আপনাকে যেসকল বিষয়ে পারদর্শী হতে হবে তা হচ্ছে,

  • অ্যানাটমি, ফিজিওলজি ও প্যাথোলজি সম্পর্কে জানতে হবে।
  • জেনারেল মেডিসিন, চায়নিজ মেডিসিন, ট্র্যাডিশনাল মেডিসিন সম্পর্কে যথেষ্ট দক্ষ হতে হবে।
  • বিভিন্ন রোগ ও এর লক্ষণের উপর ক্লিনিক্যাল নলেজ থাকতে হবে।
  • পেশেন্ট পেইন লেভেল, ফিজিশিয়ান ইন্টারভেনশন ও পেশেন্ট ইভালুয়েটিং সম্পর্কে যথেষ্ট দক্ষ হতে হবে।
  • ডায়াগনস্টিক প্রসেসিং, এক্সরে প্রসেসিং ও এমআরআই স্ক্যানিং করায় দক্ষ হতে হবে।
  • বিভিন্ন ধরণের মেডিক্যাল কন্ডিশন ও রোগের ইমেজ ডায়াগোনাইজ, ট্রিট ও ম্যানেজ করায় পারদর্শী হতে হবে।
  • মেডিক্যাল ও নন মেডিক্যাল ইক্যুইপমেন্ট সম্পর্কে জানতে হবে।
  • রেডিওলজি টেকনিক ও স্ট্র্যাটেজি সম্পর্কে যথেষ্ট দক্ষতা থাকতে হবে।
  • ডায়াগনিস্টিক রেডিওলজি ও ইন্টারভেনশনাল রেডিওলজির উপর পারদর্শী হতে হবে।
  • কম্পিউটার টমোগ্রাফি স্ক্যান বা সিটি স্ক্যান, ফ্লুরোস্কপি, ম্যাগনেটিক রেজোনেন্স ইম্যাজিং বা এমআরআই, আল্ট্রাসাউন্ড এবং এক্সরের উপর কাজ করার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
  • হাই একুইটি ইথিওলজিস ও কমপ্লেক্সিটিস সম্পর্কে গভীর দক্ষতা থাকতে হবে।
Source: lotusacupuncturecharlotte.com

একজন অ্যাকুপাংচারিস্টের কী ধরনের শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকতে হবে?

একজন অ্যাকুপাংচারিস্ট হিসেবে স্বাস্থ্য খাতে ক্যারিয়ার শুরু করার পূর্বে মেডিসিন, প্রি মেড প্রোগ্রাম, কেমিস্ট্রি, বায়োলজি, ফিজিক্স, এমক্যাট,  অথবা সার্জারি ভলানটিয়ারিং উপর কমপক্ষে দুই থেকে চার বছরের স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করা যায়। তারপর, মেডিক্যাল স্কুল অথবা ইউনিভার্সিটি থেকে বিভিন্ন ধরণের সার্জারির উপর (যেমন: প্লাস্টিক সার্জারি, কার্ডিওভাস্কুলার সার্জারি, ব্রেইন সার্জারি, ম্যাক্সিলফ্যাসিয়াল সার্জারি ইত্যাদি) ডিগ্রি অর্জন করতে হয়। এছাড়াও কেমিস্ট্রি, অ্যাকুপাংচার থেরাপি, মেডিক্যাল ট্র্যাডিশন, মেডিক্যাল ইথিকস, হিউম্যান অ্যানাটমি, ফার্মাকোলজি অথবা ফিজিওলজিএ উপর কমপক্ষে দুই থেকে চার বছরের কোর্স করলেও চলবে।

Source: wellinsiders.com

একজন অ্যাকুপাংচারিস্টের কী ধরণের কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে?

এন্ট্রি লেভেলের একজন অ্যাকুপাংচারিস্ট হিসেবে যোগদান করার পূর্বে, আপনাকে মেডিক্যাল ইক্যুইপমেন্ট টেকনিশিয়ান, চিফ রেডিওগ্রাফি টেকনোলজিস্ট, রেডিওলজিস্ট অ্যাসিস্টেন্ট, মেডিক্যাল প্রোগ্রামিং, ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা, কেমিস্ট্রি, ফিজিক্স, মেডিক্যাল রিসার্চ ও অ্যানালাইসিস, রেডিওলজি, ভাস্কুলার অটোপ্সি, এক্স-রে, এমআরআই অথবা কার্ডিওলজির উপর কমপক্ষে ২ থেকে ৩ বছরের অভিজ্ঞতা অর্জন করতে হবে।

Source: summithealingarts.com

একজন অ্যাকুপাংচারিস্টের বেতন কেমন হতে পারে?

যদি স্বাস্থ্য খাতে একজন অ্যাকুপাংচারিস্ট হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে চান, তাহলে আপনার বাৎসরিক বেতন এন্ট্রি লেভেল ও সিনিয়র লেভেলে ভিন্ন ভিন্ন হবে। এন্ট্রি লেভেলের একজন অ্যাকুপাংচারিস্টের বাৎসরিক বেতন হয় সর্বনিম্ন ২০ লক্ষ টাকা থেকে ৫০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত। সিনিয়র লেভেলের একজন অ্যাকুপাংচারিস্টের বাৎসরিক বেতন হয় সর্বনিম্ন ৪০ লক্ষ টাকা থেকে থেকে ৬০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত।

Source: healthline.com

একজন অ্যাকুপাংচারিস্ট হিসেবে ক্যারিয়ার গড়াটা আপনার জন্য অনেক সহজ হয়ে যাবে, যদি আপনি সার্জারি, ম্যানেজমেন্ট, মেডিক্যাল ট্র্যাডিশন, মেডিক্যাল ইথিকস অথবা মেডিক্যাল ট্রিটমেন্টের উপর বেশ কিছু সার্টিফিকেট অর্জন করতে পারেন। বর্তমানে অ্যাকুপাংচারের উপর যেসব সার্টিফিকেশন কোর্সের গুরুত্ব অনেক বেশি, সেগুলো হচ্ছে,

Featured Image: winonadailynews.com

The post একজন অ্যাকুপাংচারিস্ট হিসেবে ক্যারিয়ার গড়ার উপায় appeared first on Youth Carnival.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *