দরাদরি পছন্দ করে না এমন ব্যক্তির সাথে আলাপ আলোচনার কৌশল

আলোচনার ভিত্তিতে কার্যকরভাবে সবকিছু সমাধান করা ব্যবসার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই গুরুত্ব উপলব্ধি করে কিছু মানুষ কার্যকর এবং যুক্তিসঙ্গত আলোচনার জন্য সব সময় প্রস্তুত থাকে। কিন্তু আপনার চারপাশে এমন অনেক মানুষ পাবেন যারা দর কষাকষি বা আলোচনা করতে ভয় পায় এবং যতটা সম্ভব এই প্রক্রিয়া থেকে দূরে থাকে।

আলোচনার টেবিল থেকে এমন অনেক কিছু শেখা যায়, যা কখনো পাঠ্য বইয়ে পাওয়া যায় না; Source: Medium

আপনি যদি আলোচনা বা দর কষাকষির বিষয়ে ভীত হয়ে থাকেন, তবে আজকের এই নিবন্ধ আপনার জন্য। আপনার এই আশঙ্কা বা ভয় দূর করে আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর জন্য আজকের নিবন্ধে কয়েকটি বিশেষ পরামর্শ আলোচনা করা হলো। এই পরামর্শগুলো অনুসরণ করলে পরবর্তী আলোচনা বা যেকোনো ব্যাবসায়িক দর কষাকষির অভিজ্ঞতা আপনার জন্য সহজ এবং সুখকর হবে।

উন্নতি করার পরিকল্পনা

কার্যকর যোগাযোগ বা আলোচনার জন্য পূর্ব প্রস্তুতি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তবে এই পূর্বপ্রস্তুতি কেবল নিজের স্বার্থসিদ্ধির জন্য নয়। যেকোনো আলোচনা বা যোগাযোগের পূর্বে যেমন নিজের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য সম্বন্ধে নিশ্চিত থাকতে হয়, তেমনি অপর পক্ষের স্বার্থ রক্ষায়ও সমান গুরুত্ব দিতে হয়।

যেকোনো আলোচনার টেবিলে পৌঁছানোর পূর্বে নিজের বক্তব্য এবং অবস্থান সম্বন্ধে স্পষ্ট ধারণা ও পরিকল্পনা থাকতে হবে। কিন্তু আলোচনা কঠিন পর্যায়ে নিয়ে যাবেন না এবং নিজের সিদ্ধান্ত অন্যের উপর জোরপূর্বক চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করবেন না। নিজেকে যেমন যথাযথভাবে প্রকাশ করতে হবে, তেমনি আলোচনার মাধ্যমে নতুন নতুন বিষয় এবং তথ্য জানার ব্যাপারে আগ্রহী থাকতে হবে। মনে রাখবেন, আলোচনার টেবিল থেকে এমন অনেক কিছু শেখা যায় যা, কখনো পাঠ্য বইয়ে পাওয়া যায় না।

আপনাকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা এবং মানিয়ে নেওয়া শিখতে হবে; Source: The Muse

আলাপচারিতা এবং পারস্পারিক নিষ্ক্রিয়তা বিশেষজ্ঞ হার্ভার্ড বিজনেস স্কুলের অধ্যাপক মাইক হুইলারের মতে, কোনো চুক্তির আলোচনা করার সময় আপনাকে একই সাথে সক্রিয় এবং প্রতিক্রিয়াশীল থাকতে হবে।

নাট্যমঞ্চের মতো স্ক্রিপ্ট অনুযায়ী আপনি কখনোই চুক্তির দর কষাকষি বা আলাপচারিতা করতে পারবেন না। তাই আপনাকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা এবং মানিয়ে নেওয়া শিখতে হবে। সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে হবে এবং সব সময় বিচক্ষণ থাকতে হবে।

নিজস্ব কৌশল প্রয়োগ এবং নমনীয়তা

আলোচনার ভিত্তিতে সমঝোতা বা কোনো চূড়ান্ত অবস্থানে পৌঁছাতে হলে নিজস্ব কৌশল প্রয়োগ করার সাথে সাথে আপনাকে সিদ্ধান্ত গ্রহণের ব্যাপারে নমনীয় হতে হবে। কেননা আলোচনার ভিত্তিতে বা দরকষাকষির মাধ্যমে সমঝোতা করে সাফল্য অর্জন করার কোনো একক সূত্র বা পদ্ধতি নেই।

পরিস্থিতি আপনার ধারনার বাইরে থাকতে পারে, আবার অনুকূলেও থাকতে পারে। সুতরাং সাফল্য অর্জনের জন্য সব সময় নমনীয় থেকে অন্যের ভালো সিদ্ধান্ত বা যুক্তিসঙ্গত বক্তব্যে সমর্থন দিতে হবে।

যেকোনো আলোচনার টেবিলে পৌঁছানোর পূর্বে নিজের বক্তব্য এবং অবস্থান সম্বন্ধে স্পষ্ট ধারণা ও পরিকল্পনা থাকতে হবে; Source: How Stuff Works

এ ব্যাপারে আলফা গার্লস কমিক্সের প্রতিষ্ঠাতা অ্যামি চিউ মনে করেন, আপনি নমনীয় না হলে অন্যের কৌশল বা বক্তব্য আপনার কাছে গ্রহণযোগ্য হবে না। অর্থাৎ অপর পক্ষের বক্তব্য মনোযোগ সহকারে শোনা এবং নিজেকে তার সাথে সংযুক্ত করার দক্ষতা আপনার মধ্যে থাকতে হবে।

সফলভাবে চুক্তি সম্পাদনের জন্য এমন একটি সামঞ্জস্যপূর্ণ অবস্থান গ্রহণ করুন যেন নিজের ব্যক্তিগত লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য পূরণ হয়, আবার অপর পক্ষের প্রতি নমনীয়তা এবং সহযোগিতার দ্বার উন্মোচিত হয়।

ভুল করার ভীতিমুক্ত হওয়া

কোনো আলোচনা পরিকল্পনামাফিক হয় না। সুতরাং ভুল হওয়াটা খুবই স্বাভাবিক। তবে ভুল হওয়া সত্ত্বেও আপনার আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার দক্ষতা ও কৌশল চূড়ান্ত ফলাফলকে দারুণভাবে প্রভাবিত করে।

আন্তর্জাতিক বিভিন্ন অপহরণ এবং অপরাধ মামলা নিয়ে কাজ করা এবং অপরাধীদের সাথে কথোপকথনকারী এফবিআইয়ের সাবেক কর্মকর্তা ক্রিস ভস বলেন, ‘আলোচনার টেবিলে যে কোনো ভুল আপনি কাটিয়ে উঠতে পারবেন, যদি অপর পক্ষের প্রতি প্রতিশ্রুতিশীল থাকেন এবং সঠিক বিবেচনাবোধ থেকে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।’

ভুল হওয়া সত্ত্বেও আপনার আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার দক্ষতা ও কৌশল চূড়ান্ত ফলাফলকে দারুণভাবে প্রভাবিত করে; Source: Green Biz

তিনি বলেন, পরমতসহিষ্ণুতার মধ্যে এক অসামান্য শক্তি আছে। সুতরাং আলোচনার টেবিলে আপনি যেসব ভুল করতে ভয় পান, এমন ভুল প্রায় সব মানুষই করে। শুধু সম্মানজনক দৃষ্টিভঙ্গির মাধ্যমে আপনি এই ভুল বা সীমাবদ্ধতা কাটিয়ে উঠতে পারেন।

আলোচনা চলাকালীন আপনি অপরপক্ষের দৃষ্টিভঙ্গি বোঝার চেষ্টা করছেন এবং আলোচনা থেকে নতুন কিছু শেখার চেষ্টা করছেন, এমন মনোভাব প্রকাশ করুন। সব সময় মনে রাখবেন, যেকোনো ভুল পরস্পরের অবস্থান বোঝা এবং সহযোগিতার ভিত্তিতে একসাথে কাজ করার সুযোগ সৃষ্টি করে।

আবেগের সঠিক প্রয়োগ

ফলপ্রসূ আলোচনার জন্য যেমন মস্তিষ্ক লাগে, তেমনি হৃদয়ও লাগে। আবেগ অনুভূতি আপনার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য পূরণে উৎসাহিত করতে বা অনুঘটকের ভূমিকা পালন করতে পারে, তবে তার সঠিক প্রয়োগ এবং ব্যবস্থাপনা আপনাকে জানতে হবে।

রাগ, উদ্বেগ বা হেরে যাওয়ার ভয় আপনাকে বিভ্রান্ত করতে পারে। ফলে অপর পক্ষের কথায় মনোযোগ এবং শ্রদ্ধাবোধ ধরে রাখা কঠিন হতে পারে। তাই আবেগ নিয়ন্ত্রণ এবং সঠিকভাবে প্রয়োগ করা শিখতে হবে।

আবেগ নিয়ন্ত্রণ এবং সঠিকভাবে প্রয়োগ করা শিখতে হবে; Source: HR Vision Events 2019

হার্ভার্ড বিজনেস স্কুলের সিনিয়র লেকচারার অ্যান্ডি ওয়াসিনজুক বলেন, অন্যের আবেগ চুরি করে কখনো নিজের সুখ খুঁজবেন না। তিনি আরো বলেন, মোটামুটিভাবে কোনো কিছুর সমাধান করবেন না, বরং উভয়ের জন্য কল্যাণকর হয় এমন উপায় আবিষ্কার করুন।

এই প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে নিজের আবেগ নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা না করে বরং নিজের অনুভূতিগুলো খুঁজে বের করুন। আলোচনা ফলপ্রসূ করার জন্য সেই সব অনুভূতি শক্তিতে রূপান্তরিত করুন।

সম্পর্ক তৈরির প্রচেষ্টা

ফলপ্রসূ আলোচনার প্রভাব একক চুক্তি বা লেনদেনকেও ছাড়িয়ে যায়। পারস্পরিক আলোচনার সময় ব্যবসায়িক সম্পর্ক তৈরি হয়, যা ভবিষ্যতে একসাথে কাজ করাসহ নানা বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের পথ উন্মুক্ত করে।

আলোচনার ভিত্তিতে কার্যকরভাবে সবকিছু সমাধান করা ব্যবসার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ; Source: Molly Fletcher

সুতারাং আলোচনার সময় ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে চমৎকার ব্যবসায়িক সম্পর্ক তৈরির চেষ্টা করুন। আলোচনা শুধু নিজের স্বার্থসিদ্ধি বা সফল দর কষাকষির মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে পরস্পরের সহযোগিতা এবং সমৃদ্ধির জন্য আন্তরিক এবং সহযোগিতাপূর্ণ করে তুলুন।

Feature Image: How Stuff Works

The post দরাদরি পছন্দ করে না এমন ব্যক্তির সাথে আলাপ আলোচনার কৌশল appeared first on Youth Carnival.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *