যুক্তরাজ্য ও ইউরোপে ভূবিদ্যায় শীর্ষ ১০টি স্নাতকোত্তর ডিগ্রি

বিভিন্ন বিষয়কে ভিত্তি করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে অনেক ধরনের ডিগ্রি চালু রয়েছে। কোনো বিষয়ে অভিজ্ঞ ও বিশেষজ্ঞ হওয়ার জন্য উচ্চ শিক্ষার বিকল্প নেই। অনেকেরই পৃথিবী, ভূমি ও প্রকৃতি নিয়ে জানার আগ্রহ থাকে, এদের জন্য ভূবিদ্যায় স্নাতকোত্তর স্তরের ডিগ্রি অর্জন করা খুবই ভালো। এতে তারা তাদের আগ্রহের বিষয়ে উচ্চতর পর্যায়ের জ্ঞান অর্জন করতে পারবে। ভূবিদ্যাকে আর্থ-সাইন্স ও জিও-সাইন্স হিসেবেও অভিহিত করা হয়। আপনার যদি ভূবিদ্যা বিষয়ে জ্ঞান অর্জন করার অধিক আগ্রহ থাকে, তাহলে আপনি জিওলোজিতে স্নাতকোত্তর পর্যায়ের ডিগ্রি অর্জন করতে পারেন। পৃথিবীর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভূবিদ্যায় স্নাতকোত্তর পর্যায়ের শিক্ষা অর্জন করার ব্যবস্থা রয়েছে।

Source: degreequery.com

ভূবিদ্যাকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন ধরনের কোর্স ও ডিগ্রি চালু হয়েছে। আপনি যদি ভূবিদ্যায় স্নাতকোত্তর করতে চান, তবে প্রথমেই পৃথিবীর শীর্ষ স্থানীয় ভূবিদ্যাসংক্রান্ত কোর্স ও ডিগ্রিগুলো সম্পর্কে জেনে নিন। এতে আপনি আপনার পছন্দনীয় কোর্সটি সহজেই নির্বাচন করে, ভূবিদ্যায় পর্যাপ্ত জ্ঞান অন্বেষণ করতে পারবেন। ইউরোপ ও যুক্তরাজ্যের শীর্ষ পর্যায়ের স্নাতকোত্তর পর্যায়ের কোর্স ও ডিগ্রিগুলো সম্পর্কে জানতে আর্টিকেলটি পড়ুন। কারণ আমি এই আর্টিকেলটিতে যুক্তরাজ্য ও ইউরোপে ভূবিদ্যাসংক্রান্ত স্নাতকোত্তর স্তরের শীর্ষ ১০টি ডিগ্রি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

১. মাস্টার্স ইন আর্থ সাইন্স

ভূবিদ্যায় স্নাতকোত্তর স্তরের এই কোর্সটি ইটিএইচ জুরিখ সুইচ ফেডারেল ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজিতে চালু আছে। গবেষণা হচ্ছে এই কোর্সটির মূখ্য একটি বিষয়। আর শিক্ষার্থীরা ইঞ্জিনিয়ারিং জিওলজি, জিওফিজিক্স, মিনারেলজি ও জিওকেমিস্ট্রি এবং জিওলজি এই চারটি বিষয়ের মধ্যে যেকোনো একটির উপরে জ্ঞান অর্জনে মনোনিবেশ করতে পারে। ইংরেজিতে পরিচালিত এই কোর্সটি দুই কিংবা তিন সেমিস্টারে শেষ করা যায় এবং সঙ্গে একটি থিসিস করতে হয়।

Source: southwales.ac.uk

সকল শিক্ষার্থীদের জন্য প্রতি সেমিস্টারে প্রায় ৫৮০ সুইস ফ্রাঙ্ক খরচ হয়ে থাকে, যা বাংলাদেশের মুদ্রা হিসেবে প্রায় ৫ হাজার টাকা।

২. এমফিল বাই রিসার্চ থিসিস ইন আর্থ সাইন্স

এক বছর পূর্ণমেয়াদী এই কোর্সটি ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে চালু হয়েছে। ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্থ সাইন্স বিভাগ, রিসার্চ মাস্টার্স হিসেবে এই কোর্সটি পরিচালনা করে থাকে। বর্তমানে এই কোর্সের গবেষণার সঙ্গে ইগ্নিয়াস, মেটামরফিক অ্যান্ড ভলকানিক স্টাডি, খনিজ বিজ্ঞান, জিওডাইনামিক্স অ্যান্ড টেকটনিক্স এবং জিওফিজিক্স এই বিষয়গুলো যুক্ত হয়েছে। যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশসমূহের শিক্ষার্থীদের, এই কোর্সটি সম্পন্ন করতে খরচ হয়ে থাকে প্রায় সাত হাজার ৫০০ পাউন্ড বা প্রায় ৮ লক্ষ টাকা। আর অন্যান্য আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে খরচ হয়ে থাকে প্রায় ২৫ হাজার ৫০০ পাউন্ড, যা বাংলাদেশের মুদ্রার হিসাব অনুযায়ী প্রায় ২৬ লক্ষ টাকা।

৩. মাস্টার্স ইন আর্থ স্ট্রাকচার অ্যান্ড ডাইনামিক্স

২ বছর পূর্ণমেয়াদী এই কোর্সটি নেদারল্যান্ডসয়ের ইউট্রেখ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে চালু রয়েছে। ভূবিদ্যা, ভূপদার্থবিজ্ঞান, গণিত, পদার্থ ও রসায়নের মতো বিষয়গুলোর সমন্বয়ে, এই কোর্সের শিক্ষার্থীদের শেখানো হয়, কীভাবে ভূপৃষ্ঠের উপরের ঘটনার উৎপত্তি, ভূপৃষ্ঠের নিচে শুরু হয়ে থাকে।

Source: ox.ac.uk

ইংরেজিতে পরিচালিত এই কোর্সটি করতে, যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশের শিক্ষার্থীদের, প্রতি বছরে প্রায় ২ হাজার ইউরো বা ২ লাখ টাকা খরচ হয়ে থাকে। আর অন্যান্য আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের প্রতি বছরে খরচ হয়ে থাকে প্রায় ১৮ হাজার ইউরো, যা বাংলাদেশের মুদ্রা অনুযায়ী প্রায় ১৮ লাখ টাকা।

৪. এমএসসি বাই রিসার্চ ইন আর্থ সাইন্স

এক বছর পূর্ণমেয়াদী এই কোর্সটি ব্রিসটল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক পরিচালিত হয়ে থাকে। এই কোর্সটির গবেষণায় জিওকেমিস্ট্রি, জিওফিজিক্স, ভলকানোলজি, পেট্রলজি এবং প্যালিওবায়োলজির মতো বিষয়গুলো অন্তর্ভুক্ত করা হয়। যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশসমূহের শিক্ষার্থীদের, মোট খরচ হয়ে থাকে প্রায় চার হাজার দুইশত পাউন্ড বা প্রায় ৪ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা।

Source: lunduniversity.lu.se

আর আন্তর্জাতিক অন্যান্য শিক্ষার্থীদের মোট খরচ হয়ে থাকে প্রায় ২০ হাজার পাউন্ড, যা বাংলাদেশের মুদ্রার হিসাব অনুযায়ী প্রায় ২১ লক্ষ টাকা।

৫. এমএসসি ইন স্ট্রাকচারাল জিওলজি উইথ জিওফিজিক্স

এক বছর পূর্ণমেয়াদী এই কোর্সটি লিডস বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনা করে থাকে। এই কোর্সটি করার মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা ভূপদার্থ সংক্রান্ত কৌশল ও গঠন সম্পর্কে, ধারণা গ্রহণের পাশাপাশি ভূতাত্ত্বিক সমস্যার সমাধান করতে জ্ঞান ও দক্ষতা অর্জন করতে পারবে।

Source: lunduniversity.lu.se

যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশসমূহের একজন শিক্ষার্থীর মোট খরচ হয়ে থাকে, প্রায় ৯ হাজার ৫০০ পাউন্ড বা প্রায় ১০ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা। আর অন্যান্য আন্তর্জাতিক একজন শিক্ষার্থীর মোট খরচ হয়ে থাকে প্রায় ২৩ হাজার ৩০০ পাউন্ড, যা বাংলাদেশের মুদ্রার হিসাব অনুযায়ী প্রায় ২৪ লক্ষ টাকা।

৬. এমএসসি বাই রিসার্চ ইন আর্থ সাইন্স

ডারহাম বিশ্ববিদ্যালয় রিসার্চ ইন আর্থ সাইন্স ডিগ্রিটি প্রদান করে থাকে। এক বছর পূর্ণমেয়াদী এই কোর্সটি করতে, যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশসমূহের শিক্ষার্থীদের খরচ হয়ে থাকে, প্রায় ৪ হাজার ২০০ পাউন্ড বা প্রায় ৫ লাখ টাকা। আর অন্যান্য আন্তর্জাতিক ছাত্রছাত্রীদের খরচ হয়ে থাকে প্রায় ২২ হাজার পাউন্ড, যা বাংলাদেশের মুদ্রার হিসাব অনুযায়ী ২৩ প্রায় লাখ টাকা।

৭. এমএসসি ইন জিওসাইন্স

এ কোর্সটি ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডন পরিচালনা করে থাকে। এই ডিগ্রিটি ১ বছরে অর্জন করা যায়; আবার ২ বছরে খন্ডকালীনভাবেও শেষ করা যায়। এই কোর্সটিতে পৃথিবী ও গ্রহগত পদার্থবিদ্যা, আর্থ সিস্টেম বিজ্ঞান, পরিবেশ, প্যালিওবায়োলজি ইত্যাদি বিষয়গুলো অর্ন্তভুক্ত রয়েছে। যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশসমূহের শিক্ষার্থীদের পূর্ণকালীন হিসেবে একবছরে প্রায় ১০ হাজার পাউন্ড বা ১০ লাখ টাকা খরচ হয়ে থাকে।

Source: imperial.ac.uk

আর খন্ডকালীন হিসেবে প্রতি বছরে প্রায় ৫ হাজার পাউন্ড বা ৫ লাখ টাকা খরচ হয়। এছাড়া অন্যান্য আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের পূর্ণকালীন হিসেবে একবছরে প্রায় ২৭ হাজার ৫০০ পাউন্ড বা প্রায় ২৮ লাখ টাকা খরচ হয়ে থাকে। আর খন্ডকালীন হিসেবে প্রতি বছরে প্রায় ১৩ হাজার ৭০০ পাউন্ড বা ১৪ লাখ টাকা খরচ হয়।

৮. এমআরইএস ইন মেরিন জিওলজি অ্যান্ড জিওফিজিক্স

এই কোর্সটি সাউথাম্পটন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক পরিচালিত হয়ে থাকে। এক বছরে পূর্ণকালীন হিসেবে এই কোর্সটি করা যায়। আবার খন্ডকালী হিসেবে ২ থেকে ৫ বছরেও শেষ করা যায়। যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশসমূহের ছাত্রছাত্রীদের সাধারণত খরচ হয়ে থাকে প্রায় ৯ হাজার পাউন্ড বা প্রায় ৯ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা।

Source: birmingham.ac.uk

আর অন্যান্য আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের প্রায় ২০ হাজার ৫০০ পাউন্ড বা প্রায় ২১ লাখ টাকা খরচ হয়ে থাকে।

৯. এমএসসি ইন অ্যাপ্লাইড আর্থ সাইন্স

ইংরেজিতে পরিচালিত দুই বছর পূর্ণমেয়াদী, এই কোর্সটি ডেল্ফট বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনা করে থাকে। ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত রাষ্ট্রের শিক্ষার্থীদের প্রতি বছরে প্রায় ২ হাজার পাউন্ড বা ২ লাখ ২০ হাজার টাকা খরচ হয়। আর অন্যান্য আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের প্রতি বছরে প্রায় ১৪ হাজার পাউন্ড খরচ হয়, যা বাংলাদেশের মুদ্রায় প্রায় ১৫ লাখ টাকা।

১০. মাস্টার্স ইন আর্থ সাইন্স

২ বছর পূর্ণমেয়াদী এই কোর্সটি সকল শিক্ষার্থীদের জন্য বিনামূল্যে করার সুযোগ রয়েছে। ইংরেজিতে পরিচালিত এই কোর্সটি বার্গেন বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনা করে থাকে। এই কোর্সটিতে সামুদ্রিক ভূতত্ত্ব, ভূপদার্থবিজ্ঞান, ভূজীববিজ্ঞান, জিওডাইনামিক্স, পেট্রোলিয়াম ভূবিজ্ঞান ইত্যাদি বিষয়গুলো পড়ানো হয়ে থাকে।

Source: imperial.ac.uk

আপনি যদি ভূবিদ্যা সংক্রান্ত বিষয়ে স্নাতকোত্তর পর্যায়ের ডিগ্রি অর্জন করতে চান, তবে এসব কোর্স থেকে যেকোনো একটি করতে পারেন। এতে আপনার সফল ক্যারিয়ার গড়াও সহজ হয়ে যাবে।

Featured Image:Imperial.ac.uk

The post যুক্তরাজ্য ও ইউরোপে ভূবিদ্যায় শীর্ষ ১০টি স্নাতকোত্তর ডিগ্রি appeared first on Youth Carnival.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *