জার্মানিতে চাকরি খুঁজে পাওয়ার জন্য ১০টি সাধারণ পরামর্শ

source:flagpic.com

আজকাল যেকোনো প্রতিষ্ঠানে চাকরি খুঁজে পাওয়া খুব কঠিন হয়ে উঠেছে। বিশ্বের সব বড় বড় কোম্পানি আজকাল প্রযুক্তির উপর অত্যন্ত নির্ভরশীল এবং এ কারণে তারা খুব বেশি জনশক্তি নিয়োগ করতে চায় না। অনেক সাধারণ মানুষকে নিয়োগ দেয়ার বদলে তারা অল্প কয়েকজন দক্ষ ও মেধাবীদের চাকরি দিয়ে থাকেন। এতে করে অধিক কার্যকর পদ্ধতিতে এবং স্বল্পসময়ে কোনো কাজ সম্পাদন করা সম্ভব হয়।

উন্নত দেশগুলোর একটি হচ্ছে জার্মানি; source:nationalvanguard.org

বিশ্বের উন্নত দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে জার্মানি। আপনি যদি জার্মানিতে চাকরি করতে চান, তাহলে এমন কিছু বিশেষ উপায় রয়েছে, যা আপনাকে চাকরি খুঁজে পেতে সাহায্য করবে। আপনি ভুল জায়গায় সময় ব্যয় করলে সময়ের অপচয়ই হবে। তো আসুন জেনে নিই জার্মানিতে চাকরি খুঁজে পাওয়ার ১০টি সাধারণ উপায়।

১. মেনে নিন, জার্মানিতে চাকরি পাওয়া সহজ নয়

জার্মানিতে চাকরি খুঁজে পাওয়া অবশ্যই সহজ নয়। যেকোনো দেশে চাকরি খুঁজে পাওয়া চ্যালেঞ্জিং বিষয়, তবে জার্মানিতে তা আরো বড় একটি চ্যালেঞ্জ।

জার্মানরা সারা বিশ্বে ‘অসাধারণ কর্মী’ হিসেবে পরিচিত। তাই জার্মানিতে আপনি যদি চাকরি খোঁজার জন্য পর্যাপ্ত সময় ব্যয় না করেন, তবে আশানুরূপ ফল পাবেন না।

যেকোনো চাকরি খুঁজে পাওয়া কষ্টসাধ্য বিষয়; source:news.com.au

চাকরি খুঁজতে গিয়ে আপনাকে শারীরিক এবং মানসিক উভয় পরীক্ষারই সম্মুখীন হতে হবে। আপনি যে চাকরিটি করতে ইচ্ছুক বা চাকরিটি করার জন্য আপনার যে প্রয়োজনীয় দক্ষতা রয়েছে, এ বিষয়গুলো নিয়োগকর্তাদের বোঝাতে হবে।

২. ধৈর্যহারা হবেন না

আপনার দেশে হয়তো কোনো প্রতিষ্ঠানের কর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়া অতি দ্রুত সম্পন্ন হয়ে থাকে। তার মানে এই নয় যে, জার্মানিতেও ঠিক একই পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়। জার্মানরা নিজস্ব পদ্ধতিতেই তাদের কর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে থাকে।

ধৈর্যহারা না হয়ে চেষ্টা চালিয়ে যান; source:sabrangindia.in

তাই কোনো পরিস্থিতিতেই  ধৈর্যহারা হবেন না। অধৈর্য না হয়ে আপনি যদি তাদের নিয়মের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করেন, তবে এর প্রতিফলে নিশ্চয় আরো বেশি সম্মান পাবেন।

৩. নিজের দক্ষতা বাড়ানোর সময় ব্যয় করুন

জার্মানিতে চাকরি খুঁজে পাওয়ার জন্য যেহেতু ধৈর্য’একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, তাই আপনার কাজের দক্ষতাকে বৃদ্ধি করার জন্য অবসর সময়কে কাজে লাগান। জার্মানির মানুষজন খুব স্মার্ট। তাই আপনি  যদি বোকা স্বভাবের হয়ে থাকেন, তবে যেকোনো চাকরির সাক্ষাৎকারে তা পরিহার করার চেষ্টা করুন।

দক্ষতাকে বৃদ্ধি করুন; source:lankapage.wordpress.com

যে বিষয়গুলোতে আপনার দক্ষতার ঘাটতি রয়েছে, সে বিষয়গুলোতে উন্নতি করার চেষ্টা করুন। অবসর সময় অযথা অপচয় না করে কাজে লাগান। মনে রাখবেন, জার্মানরা দুর্নীতিপরায়ণ নয়। তাই আপনি যদি দক্ষতার পরিচয় দিতে পারেন, তবে তারা আপনাকে কাজে নিতে বাধ্য।

৪.  জার্মান ভাষা শেখা খুব  গুরুত্বপূর্ণ

যদি আপনি ইংরেজি জানেন, তবে তা বিশ্বের বেশিরভাগ দেশে চাকরি পাওয়ার জন্য মোটামুটি যথেষ্টই বলা যায়। তবে জার্মানির ক্ষেত্রে বিষয়টি ভিন্ন। জার্মানিতে যদি আপনি একটি ভালো চাকরি পেতে চান, তবে আপনার জন্য জার্মান ভাষা জানাটা আবশ্যক।  আপনি যদি জার্মান ভাষায় সাবলীল না হন, তবে আপনি কর্মক্ষেত্রে সুবিধা করতে পারবেন না।

জার্মান ভাষার বর্ণমালা; source:oppidanlibrary.com

জার্মানিতে বেশিরভাগ কোম্পানি জার্মান ভাষায় সাবলীল এমন ব্যক্তিদের নিয়োগ দিয়ে থাকেন। তাই আপনি যদি জার্মান ভাষা না জেনে থাকেন, তবে অতিসত্বর ভাষাটি আয়ত্ত করুন।

৫. নিম্নপর্যায় থেকে শুরু করা কোনো লজ্জার বিষয় নয়

অনেকেই আছেন যারা মনে করেন, তারা শুরু থেকেই সঠিক কাজ পাবেন। কিন্তু আপনি যখন জার্মানিতে চাকরি খোঁজার জন্য আসবেন, দয়া করে মনে রাখবেন, শুরুর দিকে ছোটবড়  কোনো কাজেই লজ্জা নেই। নিম্ন পর্যায়ের কাজ দিয়েই শুরু করুন। তারপর নিজের দক্ষতা এবং পরিশ্রম দিয়ে সাফল্যের শীর্ষেও পৌঁছাতে পারবেন। মনে রাখবেন, জার্মানিতে শ্রমের মর্যাদা দেয়া হয়,তাই সেখানে প্রত্যেকের সম্মান রয়েছে।

ধনী পরিবারে জন্ম নিয়ে যারা বিত্তবৈভবের মালিক হন, তাদের চেয়ে যারা নিজের কঠোর পরিশ্রম ও সততার মাধ্যমে বড় কিছু হতে পারেন, তাদেরকেই বেশি সম্মান দেয়া হয়। তাই আপনার মনে যদি  কোনো  নেতিবাচক চিন্তা থেকে থাকে, তবে অবিলম্বে তা মন থেকে সরিয়ে ফেলুন।

৬. অন্যের সাহায্যের উপর নির্ভর করবেন না

জার্মানরা তাদের অনেক ইতিবাচক বৈশিষ্ট্যের জন্য সুপরিচিত হলেও দুর্ভাগ্যজনকভাবে তারা খুব একটা বন্ধু সুলভ নয়। যদিও এর ব্যতিক্রমও আছে, কিন্তু আপনি যেখানেই যাবেন, সেখানেই অনেক লোক আপনাকে সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসবে, আপনাকে চাকরি পেতে সহায়তা করবে, এতোটা আশা করবেন না।

অন্যের সাহায্যের উপর নির্ভর করবেন না; source:desktop-screens.com

জার্মানির মানুষ সাধারণত অন্যদের ব্যবসা বা কাজকর্ম নিয়ে মাথা ঘামাতে চান না। এখানে প্রত্যেক ব্যবসায়ী বা কর্মজীবী নিজেদের কাজকর্ম নিয়েই ব্যস্ত থাকেন। তাই অন্যের সাহায্যের জন্য পথ চেয়ে বসে না থেকে আত্মনির্ভরশীল হোন।

৭. একটি কাজ কখনোই যথেষ্ট নয়

যখন আপনি জার্মানিতে চাকরির জন্য যাবেন, তখন কেবল একটি কাজের মধ্যেই নিজেকে সীমাবদ্ধ রাখবেন না। বেশিরভাগ জার্মানরা একাধিক কাজ করতে পটু।  আপনি যদি দুইটি কাজ করতে পারেন, তাহলে কিছু অতিরিক্ত অর্থ আয় করতে করে সঞ্চয় করতেও পারবেন। প্রথমদিকে খুব ক্লান্তিকর মনে হলেও সময়ের সাথে সাথে খুব ভালোভাবে মানিয়ে নিতে পারবেন।

এছাড়া হঠাৎ যদি কোনো কারণে  একটি কাজ আপনার হাতছাড়া হয়ে যায় তবে অপরটির মাধ্যমে আপনি জীবিকা নির্বাহ করতে পারবেন। আপনার কাজগুলোর মধ্যে একটি যদি খুবই ক্লান্তিকর হয়, তাহলে দ্বিতীয় এমন একটি পেশা গ্রহণ করুন যা আপনার বেঁচে থাকার অবলম্বনও হবে, আবার মনও ভালো রাখবে।

৮. যতটা সম্ভব ইন্টারনেট ব্যবহার করুন

বর্তমান সময়ে আমাদের সবার কম্পিউটারেই ইন্টারনেট কানেকশন রয়েছে। যাদের কম্পিউটারে ইন্টারনেট সংযোগ নেই, তারাও তাদের স্মার্টফোন ব্যবহার করে ইন্টারনেটে যুক্ত হতে পারেন। আপনি যদি দ্রুত চাকরি পেতে চান, তাহলে যথাসম্ভব এই ইন্টারনেট প্রযুক্তিকে কাজে লাগান।

যথাসম্ভব ইন্টারনেটে সক্রিয় থাকুন; source:desktopbackground.org

কেননা এই ইন্টারনেটের কল্যাণে শুধুমাত্র একটি ক্লিকের মাধ্যমে আপনার সামনে হাজির হয় হাজারো তথ্য। তাই আপনি ওয়েব ব্রাউজিং করে খুব সহজেই বহু প্রতিষ্ঠানের চাকরির নিয়োগবিজ্ঞপ্তি দেখতে পারেন। তাছাড়া বিভিন্ন অনলাইন সংবাদপত্রেও চাকরির অনুসন্ধান করতে পারেন। তাই আপনি যত বেশি ইন্টারনেট ব্যবহার করবেন, তত বেশি চাকরির বিজ্ঞাপন দেখতে পাবেন। এতে করে আপনার চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বৃদ্ধি পাবে।

৯. ফ্রিল্যান্সিং করতে পারেন

আপনি যদি কোনো কোম্পানিতে চাকরি খুঁজে না পান, তবে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করতে পারেন। আপনি যদি ফ্রিল্যান্সিং করেন, তবে একদিকে যেমন অর্থ উপার্জন করতে পারবেন, তেমনি আপনার নিজস্ব পরিচিতি তৈরি হবে। তবে এক্ষেত্রে সময় ও মনোযোগ এ দুটো দেয়াই জরুরি।

বিকল্প হিসেবে ফ্রিল্যান্সিং করতে পারেন; source:iconacademe.com

১০. জার্মানিতে থেকেই  চাকরির জন্য আবেদন করুন

জার্মানিতে থেকেই জার্মানির চাকরির জন্য আবেদন করতে হবে। আপনি যদি অন্য কোনো দেশে অবস্থান করে জার্মানিতে চাকরির জন্য আবেদন করেন, তবে আশানুরূপ ফল পাবেন না। কারণ যারা জার্মানিতে থাকাবস্থায় চাকরির জন্য অাবেদন করেন, তাদেরকেই অগ্রাধিকার দেয়া হয়ে থাকে।

জার্মানিতে অবস্থান করে চাকরির জন্য অাবেদন করুন; source:pihma.edu

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *