Source: art2sarov.ru

পণ্য বাজারজাতের পূর্বে যে ৫টি বিষয় না মানলেই নয়

মাইক্রোসফট আর এডোবির মতো বৃহৎ প্রতিষ্ঠানের সাথে প্রোডাক্ট ম্যানেজার হিসাবে কাজ করার অভিজ্ঞতা থেকে পল সুস্তাক (Paul Shustak)  পণ্য সামগ্রী ডিজাইনের বিষয়ে বেশ কিছু মন্তব্য গণমাধ্যমের কাছে প্রকাশিত করেছেন। তিনি তার অভিজ্ঞতার আলোকে বলেন, “২০০৯ সনে যখন আমি নিজে উদ্যোক্তা হিসেবে ব্যবসা শুরু করি, তখন আমার পার্টনার এরিক বার্নারের সাথে ‘কেওআর ওয়াটার’ নামে একটি পানির বোতল ডিজাইন করি। ডিজাইন করার সময় আমরা কিছু বিষয় মাথায় রেখে কাজ করেছিলাম, যার ফলে খুব দ্রুতই আমাদের পণ্য জনপ্রিয়তা পেয়েছিলো। পানির বোতল ইন্ডাস্ট্রিতেও আমরা নিজেদের অবস্থান গড়ে তুলতে পেরেছিলাম।”

Source: usejournal

বর্তমানে বেশিরভাগ উদ্যোক্তাদের মধ্যে কিছু ভুল ধারণা দেখা যায়। উদাহরণ স্বরূপ, সফটওয়্যার ডেভেলপারদের কথাই ধরা যাক। আকর্ষণীয় ডিজাইন, অসাধারণ ফিচার আর ভালো চলার পরও তাদের তৈরি সফটওয়্যারগুলো সফলতা অর্জন করতে ব্যর্থ হয়। এর মূল কারণ হচ্ছে, বাজারের প্রয়োজনীয় চাহিদা পূরণে ব্যর্থতা। পণ্য সামগ্রী ডিজাইনের বিষয়ে পল সুস্তাকের মন্তব্যের ভিত্তিতে চলুন জেনে নেয়া যাক, যেসব বিষয় মেনে চললে পণ্য বাজারজাতকরণে সফলতা অর্জন করা সম্ভব।

১. অতিরিক্ত পার্টস ব্যবহার হতে বিরত থাকা

উদাহরণ হিসাবে পল সুস্তাকের ‘কেওআর ওয়ান’ পানির বোতলের কথাই বলা যাক। তিনি এই বোতলটি ডিজাইন করতে মাত্র ১৫ টি পার্টস ব্যবহার করেছেন। যেগুলোর প্রতিটি আলাদা আলাদা ক্ষুদ্র কাজের জন্য তৈরি।  কোনো অপ্রয়োজনীয় অংশ তিনি যুক্ত করেননি।

Source: usejournal

কারণ অতিরিক্ত অংশ যোগ করলে আপনার উৎপাদন খরচ বৃদ্ধি হবে। যার ফলে বিক্রয় মূল্যেরও বৃদ্ধি ঘটবে। আর ভোক্তা শ্রেণী সেজন্য কখনোই অতিরিক্ত মূল্য পরিশোধ করতে রাজি হবেনা। আর আপনার পণ্যকে খুবই সাদামাটা কিন্তু কার্যকরী উপায়ে যদি উপস্থাপন করতে পারেন, তাহলে আপনি কম বিনিয়োগে অধিক মুনাফা অর্জন করতে পারবেন।

২. নিম্ন পরিমাণ এসকেইউ (SKU)

আপনি যদি বস্তুগত পণ্য বাজারজাত করনের বিষয়ে নতুন হয়ে থাকেন তাহলে এসকেইউর নাম অসংখ্যবার শোনার জন্য প্রস্তুত থাকুন। এসকেইউর (SKU) পূর্ণ অর্থ হচ্ছে ‘স্টক কিপিং ইউনিট’। যা আপনার বাজারজাত করা প্রতিটি পণ্যের ভিন্নতাকে বুঝিয়ে থাকে। উদাহরণ হিসাবে বলা যায়, ধরুন আপনি আইফোনের একটি মডেলের পাঁচ রঙের ব্যাককভার তৈরি করলেন। সেক্ষেত্রে প্রতিটি রঙের ব্যাককভার আলাদা আলাদা এসকেইউ হিসাবে গণ্য করা হবে।

আবার যদি ফোনের মডেলও আলাদা হয়, সেক্ষেত্রে তা নতুন আরেকটি এসকেইউ হিসেবে ধরা হবে। তবে আপনি যখন একই মডেলের মধ্যে অসংখ্য ভিন্নতা রাখবেন, তখন আপনার কাজগুলো আরো জটিল হয়ে উঠবে। যার ফলে পণ্য বিক্রয় সামলানোর ক্ষেত্রে আপনার অপদস্থ হওয়ার সম্ভাবনা বৃদ্ধি হয়।

Source: usejournal

এটি সত্য যে, বাজার ধরতে আপনার পণ্যে অসংখ্য ভিন্নতা নিয়ে আসতে হবে। তবে প্রথমে আপনাকে নির্দিষ্ট এক ধরনের পণ্য বাজারজাত করতে হবে। আর সেটি যথাযথভাবে বাজারজাত হওয়ার পূর্বে পণ্যে ভিন্নতা নিয়ে আসলে আপনাকে চরম মাশুল গুনতে হবে।

এছাড়া এসকেইউর পরিমাণ কম রাখলে আপনার উৎপাদন খরচ হ্রাস হওয়ার পাশাপাশি সেগুলো সংরক্ষণ, বাজারজাত এবং ক্রেতাদের চাহিদা পূরণ করা সহজ হয়ে উঠবে। এই কাজে আপনি ফোর্ড অটোমোবাইল কোম্পানির পদ্ধতি অনুসরণ করতে পারেন। ‘মডেল টি’ অটোমোবাইল বাজারজাত করার পাঁচ বছর পর্যন্ত তারা  শুধু কালো রঙের গাড়িই বিক্রি করেছেন, রঙের ভিন্নতা আনেননি।

৩. খুচরো বিক্রয়ের জন্য ডিজাইন করুন

কোনো ডিলারের সাহায্য না নিয়ে  সরাসরি খুচরা বিক্রি করার চেষ্টা করুন। কারণ আপনি যখন মধ্যবর্তী কোন মাধ্যমের সহায়তায় পণ্য বিক্রয় করবেন, তখন পণ্যের ৫০ থেকে ৬০ শতাংশ মুনাফা ডিলার এবং দোকানদার পাবেন। যার ফলে আপনার আয়ের পরিমাণ হ্রাস পাবে। এটা ঠিক শুরুর দিকে হয়তো মধ্যবর্তী মাধ্যম ছাড়া কোন গতি আপনার থাকবে না। তবে খুব শীঘ্রই খুচরো বিক্রয়ের বিষয়টি আপনার নিজের হাতে নিতে হবে।

Source: GoLocall

এক্ষেত্রে আপনি আপনার পণ্য কীভাবে বিক্রি করছেন, কীভাবে প্যাকেটজাত করছেন, এই বিষয়টিও গুরুত্বপূর্ণ। কারণ দোকানে একই ধরনের পণ্য থাকতে কী কারণে আপনার পণ্যটিই ক্রেতা বাছাই করবেন? সেজন্য আপনার পণ্য এমনভাবে উপস্থাপন করুন, যাতে বাজারে একই ধরনের অন্যান্য পণ্য থাকতেও আপনার পণ্যটি কিনতেই ক্রেতা আগ্রহী হন।

৪. সেবার দিকে লক্ষ্য রেখে ডিজাইন করুন

বেশিরভাগ সময়েই দেখা যায়, পণ্য কেনার পর ক্রেতা এবং প্রতিষ্ঠানের মধ্যে কোন সম্পর্ক থাকেনা। তেমনটি না করে আপনি যদি আপনার পণ্যটি এমনভাবে ডিজাইন করতে পারেন, যেন পণ্য ক্রয়ের পরেও ক্রেতা আপনার সাথে যোগাযোগ রাখবেন, তাহলে সেটাই হবে সেরা পণ্য। উদাহরণ হিসাবে ‘কেওআর ওয়ান’ পানির বোতলের কথাই ধরা যাক। এই বোতলে পানি পরিশোধনের জন্য একটা স্পেশাল ফিল্টার ব্যবহার করা হয়েছিলো। যেটি নির্দিষ্ট সময় পরপর পরিবর্তন করতে হয়।

Source: GoLocall

আর নতুন ফিল্টার যেন সরাসরি কোম্পানি থেকেই কেনা যায়, সে ব্যবস্থাও পল সুস্তাক করেছিলেন। ফলে কোম্পানির সাথে ভোক্তার দীর্ঘমেয়াদি সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তাই আপনার পণ্যটি এমনভাবে তৈরি করুন, যাতে  ক্রেতাদের সাথে দীর্ঘমেয়াদি একটি সম্পর্ক গড়ে তোলা সম্ভব হয়।

৫. প্রোটোটাইপ তৈরি এবং পরীক্ষা

পণ্য মোটামুটি কাঙ্ক্ষিত চাহিদা পূরণ করছে মনে হলেই আমরা বাজারজাত করার জন্য উঠেপড়ে লাগি। কারণ বিভিন্ন যন্ত্রপাতি আর সংরক্ষণের জন্য প্রতিদিন যখন অর্থ ব্যয় হয়, তখন আয়ের বিষয়টি বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠে।

Source: usejournal

কারণ আপনি যখন পরীক্ষানিরীক্ষার পূর্বেই আপনার পণ্য বাজারজাত করবেন, তখন নানা ধরনের ত্রুটি থাকা স্বাভাবিক। যার কারণে পরবর্তীতে ক্রেতারা আপনার পণ্য বর্জন করতে পারেন।  তাই আপনার প্রোটোটাইপ খুব ভালোভাবে ব্যবহার ও পরীক্ষা করুন। সকল ত্রুটি বের করে সেগুলোর সমাধানে গুরুত্ব দিন। এরপর বাজারজাতকরণে মনোনিবেশ করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *