প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে আয় করুন

প্রোগ্রামিং নিয়ে প্রতিবছরই বিভিন্ন অর্গানাইজেশন প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। প্রতিযোগীদের মধ্য থেকে ভালো প্রোগ্রামারদের খুঁজে বের করা হয় ও তাদেরকে সেরাদের সেরা হিসেবে লিডারবোর্ডে স্থান দেয়া হয়। নিজের নাম, সারা বিশ্বের সকল প্রোগ্রামারদের লিডারবোর্ডে সবার উপরে দেখাটাও অনেকটা ভালো লাগার। কিন্তু শুধু এই মানসিক শান্তির জন্যই কি প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়?

Source: thenextweb.com

প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের মধ্য থেকে সেরা প্রোগ্রামারদের, বিভিন্ন বড় বড় কোম্পানি (যেমনঃ গুগল, মাইক্রোসফট, আইবিএম, ফেসবুক ইত্যাদি) চাকরি দিয়ে থাকে এবং আয়োজনকারী প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে বেশ মোটা অংকের অর্থ প্রদান করা হয়। চলুন আজকে জেনে আসি, এমন কয়েকটি প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা সম্পর্কে।

Source: mashable.com

টপ কোডার

প্রায় ২০০ টি দেশের ২ লক্ষ ৫০ হাজারেরও বেশি সদস্য নিয়ে গড়ে ওঠা টপ কোডার  পৃথিবীর সবচেয়ে বড় এবং প্রতিযোগিমূলক সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট কমিউনিটি। এই ওয়েবসাইটটি জাভা, সি, সি প্লাস প্লাস ও সি শার্পের উপর প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে। একইসাথে অনলাইন অ্যালগরিদম প্রতিযোগিতাও হয়ে থাকে এখানে।

Source: topcoder.com

ডিজাইন এবং ডেভেলপমেন্টের উপর সাপ্তাহিক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। অ্যালগরিদম বেইজড প্রতিযোগিতাগুলো সাধারণত দু’ঘন্টার মধ্যেই সমাপ্ত হয়ে যায়। কিন্তু ম্যারাথন প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতাগুলো কয়েক সপ্তাহ ধরে চলমান থাকে। ডিজাইন এবং ডেভেলপমেন্টের প্রতিযোগিতাগুলো মূলত বিভিন্ন কোম্পানি থেকে স্পন্সরশিপের মাধ্যমে আয়োজন করা হয়।

Source: codeforces.com

টপ কোডারের প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতাগুলো বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বিনামূল্যে আয়োজন করা হয়। যার ফলে আপনাকে কোনোভাবেই টাকা খরচ করতে হচ্ছে না। কিন্তু আপনি যদি টপ কোডারের সদস্য হয়ে যান, তাহলে জাজ হিসেবে কিংবা ক্রাউডসোর্সিং চ্যালেঞ্জের মাধ্যমে বেশ ভালো অংকের অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

Source: slideshare.net

কোড শেফ

ভারতীয় ডেভেলপারদের দ্বারা তৈরি ও ২৫ হাজারেরও বেশি সদস্য নিয়ে গঠিত একটি অবাণিজ্যিক প্রোগ্রামিং কমিউনিটি হচ্ছে কোড শেফ। সারা বিশ্বের সকল সদস্যের জন্য এই প্রোগ্রামিং কমিউনিটি বিভিন্ন প্রতিযোগিতা, ট্রেনিং ও ইভেন্টের আয়োজন করে থাকে। কোড শেফের স্থানীয় সদস্যরা প্রায়ই বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, ইউনিভার্সিটি, ফেসবুক, স্টিম এবং টুইটারে বিভিন্ন ধরনের মিটআপের আয়োজন করে থাকেন।

Source: codechef.com

আপনি তাদের ওয়েবসাইট থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে তারপর বিভিন্ন প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবেন। আপনি চাইলে নিজের কমিউনিটি তৈরি করে সেখানে প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে পারবেন। কোড শেফে এপিআই হ্যাকাথন, আর্টিফিশিয়াল প্রতিযোগিতা, লাঞ্চ টাইম চ্যালেঞ্জ, কুক অফ চ্যালেঞ্জ এবং প্রত্যেক মাসের  চ্যালেঞ্জে অংশ নিতে পারবেন।

Source: codeforces.com

কোড শেফের সদস্য হিসেবে আপনি তাদের বিভিন্ন ইভেন্ট ও প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে বেশ ভালো পরিমাণ আয় করতে পারবেন। কোড শেফের ডেভেলপার কোম্পানি ডিরেক্ট আইতে একজন দক্ষ প্রোগ্রামার হিসেবে চাকরিও পেতে পারেন।

Source: media.net

অ্যাপস ফর ডেভেলপমেন্ট

ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের অধীনে সকল সফটওয়্যার ডেভেলপারদের জন্যে সোশ্যাল ইনোভেশন তৈরি করার জন্যে অ্যাপস ফর ডেভেলপমেন্টের প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়ে থাকে, যেখানে একজন সফটওয়্যার ডেভেলপার তার আইডিয়া কিংবা সফটওয়্যার সাবমিট করতে পারেন। আপনি যেকোনো ধরনের সফটওয়্যার, মোবাইল ডিভাইস, ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন, কনসোল অথবা এসএমএস সেখানে সাবমিট করতে পারবেন।

Source: thebroom.ng

ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের ডেটা ক্যাটালগের সাথে আপনার সফটওয়্যার মিলে গেলে তারা সেই সফটওয়্যার বেশ ভালো মূল্যে আপনার কাছ থেকে কিনে নেবেন। তারা প্রায়ই বিভিন্ন দেশে ও স্থানীয়ভাবে সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্টের উপর এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকেন। উদাহরণস্বরূপ ধরা যায়, নিউইয়র্ক শহরে আয়োজিত এনওয়াইসি বিগ অ্যাপস কম্পিটিশন ২.০

Source: dailynewsegypt.com

ফেসবুক ইঞ্জিনিয়ারিং পাজলস

ফেসবুকে চাকরি করা কিংবা ফেসবুক প্রোগ্রামার কমিউউনিটিতে যোগদান করার স্বপ্ন প্রায় প্রত্যেকটি প্রোগ্রামারেরই। ফেসবুক ইথিক্যাল হ্যাকার ও বাগ বাউন্টারদের জন্য বাগ বাউন্টি প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে। প্রোগ্রামারদের জন্যও ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তৈরি করেছে ফেসবুক ইঞ্জিনিয়ারিং পাজলস সেকশন।

Source: phys.org

ফেসবুক ইঞ্জিনিয়ারিং পাজলস প্রতিযোগিতাটি ফেসবুকের ক্যারিয়ার পাতায় খুঁজে পাবেন, যেটা ফেসবুকে চাকরির জন্যে বেশ ভালো একটি সুযোগ। কিন্তু আপনাকে এর জন্য অনেক কষ্ট করতে হবে ও লক্ষ লক্ষ প্রোগ্রমারদের পেছনে ফেলে সামনে এগিয়ে যেতে হবে। তবে একবার সুযোগ পেয়ে গেলে ফেসবুকে চাকরি পাবার সম্ভাবনাও অনেক বেড়ে যায়।

Source: jorelfermin.com

এছাড়াও প্রোগ্রামারদের জন্যে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বাগ বাউন্টি প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে, যেখানে অংশ নিয়ে আপনিও বেশ ভালো পরিমাণ সম্মান ও অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

Source: webpronews.com

এইচটিএমএল ৫ কন্টেস্ট

নতুনদের জন্য কিছুদিন আগেই চালু হয়েছে এইচটিএমএল ৫ কন্টেস্ট ওয়েবসাইটটি। এই ওয়েবসাইট থেকে আপনি বিভিন্ন ধরনের মোবাইল গেম ও সফটওয়্যার এবং ওয়েব অ্যাপ্লিকেশনের প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবেন। প্রতি মাসেই নতুন নতুন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয় এখানে।

Source: slideshare.net

তারা যেসকল প্রতিযোগিতার আয়োজন করেন, সেগুলোতে প্রায় হাজার হাজার প্রতিযোগী গেম সাবমিট করে থাকেন। যদি আপনার তৈরি করা গেইম প্রথম স্থানে আসতে পারে, তাহলে আপনি পেয়ে যাবেন ৭৭০০ ডলার প্রাইজ মানি। এই ওয়েবসাইটটি বর্তমানে স্পিল গেইমস নামেই বেশি পরিচিত।

Source: mcvuk.com

বিটওয়াইজ

পৃথিবীর সেরা একটি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে ভারতে অবস্থিত আইআইটি খড়গপুর । এই বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্ট  বিটওয়াইজ ওয়েবসাইটে প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। এই প্রতিযোগিতায় মূলত সি ও সি প্লাস প্লাসের উপর বেশি গুরুত্ব দেয়া হয়।

Source: codechef.com

প্রায় প্রতিটি প্রতিযোগিতাতেই ৬৬ টি দেশের ১৪০০ এর বেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫০০০ এর মতো দল  অংশ নেয়। কোনো ধরনের রেজিস্ট্রেশন ফি কিংবা অর্থ ছাড়াই প্রোগ্রামাররা এখানে অংশ নিয়ে থাকেন। আর প্রতিযোগিতায় জয়ী হতে পারলে প্রায় ১০০০ ডলার প্রাইজ মানিও পাওয়া যায়।

Source: mysirg.com

আল জিমারম্যানস প্রোগ্রামিং কন্টেস্ট

আপনি যদি নিজেকে একজন দক্ষ প্রোগ্রামার মনে করেন, তাহলে আপনার জন্যই আল জিমারম্যান’স প্রোগ্রামিং কন্টেস্ট ওয়েবসাইট। এখানে ৬ মাস পর পর এবং প্রতি বছরেই বিভিন্ন প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। ভাষা ব্যবহারের দিক দিয়ে এই ওয়েবসাইট সবচেয়ে উদার। কারণ এখানে আপনি যেকোনো প্রোগ্রামিং ভাষাতেই প্রতিযোগিতায় লড়তে পারবেন।

Source: recmath.org

এখানে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের থেকে জয়ীদের আবারো তিনটি ধাপে লড়তে হয়। চূড়ান্ত বিজয়ীকে মেডেল, স্ক্লাপচার ও প্রাইজ মানি দেয়া হয়।

Source: plus.google.com

প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতাগুলোতে শুধুমাত্র পুরষ্কার কিংবা অর্থের জন্যই অংশগ্রহণ করা উচিত নয়, বরং প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতাগুলো থেকে আপনি নিজের তুলনামূলক অবস্থানও যাচাই করতে পারবেন।

Featured Image: pressofatlanticcity.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *