যে ৪টি উপায়ে প্রতিষ্ঠানের সেরা কর্মচারীদের মাঝে কর্মব্যস্ততা সৃষ্টি করতে পারেন

আপনি যদি কোনো কোম্পানির বস হন তবে গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো সম্ভবত সেই কর্মচারীদেরকেই দিতে চাইবেন যারা কোনো কাজকে যথেষ্ট চ্যালেঞ্জ হিসেবে নেয় কিংবা কাজ ফেলে রাখতে চায় না অথবা বেশি বেশি কাজ করার ইচ্ছা প্রকাশ করে। কিন্তু আপনাকে তো কোম্পানির অন্য যে কর্মচারী আছে তাদেরকে দিয়েও কাজ করিয়ে নিতে হবে। এক্ষেত্রে আপনি তাদের উন্নতির জন্য কিছু প্রকল্পের আয়োজন করতে পারেন যেমন, দক্ষতা বাড়ানোর জন্য চাপ দিতে পারেন অথবা তাদের উদ্ভাবনী শক্তি বৃদ্ধি করার জন্য বাধ্য করতে পারেন। এতে অব্যশই তারা শক্তিশালী কর্মচারী হয়ে উঠবেলন।

তবে অনেক সময় এধরনের প্রকল্প বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়ে ওঠে না। ঘটনা যদি এমনটাই হয়ে থাকে; তখন আপনাকে বাধ্য হয়েই কাজগুলো সেরা কর্মচারীদের উপরই চাপিয়ে দিতে হয়। আপনি যদি আপনার সেরা কর্মচারীদেরকে কিছু কৌশলের মধ্যে রাখেন তবে তাদের কাছে থেকে ভালো কাজ ফেরত পাবেন। আসুন জেনে নিই কৌশল বা পদ্ধতিগুলো কী কী।

source:www.static1.squarespace.com

১. সময়

প্রায় প্রত্যেক মানুষের ক্ষেত্রে খুব কম গুরুত্বপূর্ণ কাজও অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে যদি সেই কাজটি শেষ করার জন্য নির্দিষ্ট সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়। অনেকক্ষেত্রে এমন হয় যে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে আপনার সেরা কর্মচারীরাও কাজগুলো শেষ করতে সক্ষম হয়নি। তখন আপনি তাদের কিছু কঠিন প্রশ্নের সামনে দাঁড় করাতে পারেন। প্রশ্নগুলো এমন হতে পারে-

  • কোনো কাজ শেষ করার জন্য যদি বার্ষিক সময়সীমা ১২ মাসের জায়গায় কমিয়ে  ৯ মাস করা হয় তাহলে আপনারা কি কি ধরনের ব্যতিক্রমধর্মী পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন?
  • ধরুন আপনি তিন মাসের জন্য কর্মক্ষেত্র থেকে ছুটিতে গেলেন। আপনি তখন কিভাবে নিশ্চিত করবেন যে আপনাকে ছাড়া কাজগুলো সঠিকভাবে চলবে?
  • আপনি যদি জানতে পারেন যে আজ থেকে আগামী তিন বছর আপনি আর আপনার বর্তমান পোস্টে কাজ করতে পারবেন না তাহলে নতুন পোস্টের জন্য আপনি কি করবেন?

    source:www.educationcareerarticles.com

এই প্রশ্নসমূহের উত্তরগুলো আপনাকে আপনার অধীনস্ত কর্মচারীদের বুঝতে সাহায্য করবে। এমনকি ভবিষ্যতে যদি আপনার কোনো সেরা কর্মচারী অসুস্থ হন বা মাতৃত্বকালীন ছুটিতে থাকেন অথবা কারো যদি পোস্ট পরিবর্তন হয় তখন আপনি অতি সহজেই সেই অবস্থাগুলো উতরে যেতে পারবেন।

২. টাকা

কোনো কাজ কম খরচে সমাপ্ত করতে আমরা তখনি ভাবতে শুরু করি যখন আমাদের তহবিল কম থাকে। এমন ২০০টি ব্যর্থ স্টার্টআপের উপর সমীক্ষা চালানোর পর এটা জানা যায় যে, তাদের ব্যর্থতার পেছনে মূল কারণ ছিল তাদের অপর্যাপ্ত তহবিল। অপর্যাপ্ত তহবিল নিয়ে কখনোই কোনো স্টার্টআপ সফলভাবে দাঁড়াতে পারে না। পর্যাপ্ত অর্থায়ন সকল সমস্যার সমাধান দেবে না কিন্তু খালি পকেটও কারো কাম্য নয়।

source:www.cnbc.com

আপনি যদি চান তবে আপনার কর্মচারীদেরকে জিজ্ঞাসা করতে পারেন এইভাবে যে, “কোনো কাজ সুষ্ঠুভাবে অথচ কম খরচে কিভাবে সম্পাদন করা যেতে পারে?” এখানে আরো কিছু প্রশ্ন দেওয়া হল যা আপনি তাদের দিকে ছুঁড়ে দিতে পারেন। ধরুন আপনার একক মালিকানাধীন একটি লাভজনক ব্যবসা আছে, এই ক্ষেত্রে আপনার ব্যবসার রূপরেখা কী ধরনের হতে পারে?

  • মনে করুন, আপনার কাছে বর্তমান মার্কেটিং বাজেটের অর্ধেক আছে, এর জন্য ব্যতিক্রমভাবে আপনি কী করবেন?
  •  আপনাকে যদি বলা হয় যে, একটি পণ্য ২৫% কম উপাদান দ্বারা তৈরি করতে হবে। তাহলে এই পণ্যটি উৎপাদন করার জন্য আপনি কী করতে পারেন?
  • একটি পণ্য উৎপাদনের জন্য আপনার কাছে যে পরিমাণ বাজেট ছিল সেটাকে কমিয়ে কোনো কারণে যদি অর্ধেক করা হয় এবং সেই অবস্থায়ও সেই পণ্যটির ডেলিভারি অব্যাহত রাখতে হয় তবে আপনি কিভাবে বিষয়টি সামলাবেন?
  •  আপনাকে যদি আপনার বর্তমান বাজেটের ৮০% ব্যবহার করে একটি “এ-দল” সাজাতে বলা হয় তাহলে সেটি আপনি কিভাবে করবেন?

    source:us.gmocloud.com

এই প্রশ্নগুলো আলোচনার পর আপনি আপনার কর্মচারীদের বলবেন “তাহলে আপনারা এখন কেন কাজগুলো করছেন না?” মনে রাখবেন চাহিদাই উদ্ভাবনের কারন। যদি মই না থাকে তবে দড়ি ব্যবহার করার চেষ্টা করুন। যখন দড়ির শেষপ্রান্তে পৌঁছে যাবেন তখন জেমস বন্ডের মতো জিপ লাইন উপর একটি বেল্ট নিক্ষেপ করুন এবং স্লাইড করে নিচে নামুন। যখন পর্যাপ্ত পরিমাণ টাকা থাকবে না অথবা প্রচলিত ব্যবস্থার উপর বিরক্তিভাব আসবে তখন নতুন কোনো উপায় আবিষ্কার করুন।

৩. অভিজ্ঞতা

এই পৃথিবীতে যেমন অভিজ্ঞ  লোকের প্রয়োজন আছে তেমনি শিক্ষানবিশদেরও প্রয়োজন আছে। কিছু কিছু সময় এমন হয় যে কোনো জটিল বিষয় কিভাবে সমাধান করা যায় তার সেরা ধারনাটা নতুনদের মাথা থেকেই আসে। তাহলে চলুন দেখা যাক কিভাবে একজন অদক্ষ কর্মচারী আপনার কাছে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে, তাদেরকে প্রশ্নগুলো করুন।

  •  যদি আপনার কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী আপনার ব্যবসাকে ধ্বংস করার চেষ্টা করে তবে এই সমস্যা এড়ানোর জন্য আপনি কী পদক্ষেপ নেবেন?

    source:www.blog.contratanet.com

  •  আপনি একদিনের জন্য যদি সিইও হন এবং কোম্পানিটি যদি আপনার দক্ষতার উপর নির্ভর করে চলে তবে আপনি কী কী পরিবর্তন সাধন করবেন?
  •  আপনার দলে যদি সবাই নতুন হয়, যদি কোনো দক্ষ লোক না থাকে সেইক্ষেত্রে আপনি ব্যতিক্রমধর্মী কী করবেন?

৪. ক্রয়-বিক্রয় সম্পর্কিত জ্ঞান

আপনার কর্মচারীদের মাঝে যদি পর্যাপ্ত পরিমাণ ক্রয়-বিক্রয় সম্পর্কিত জ্ঞান থাকে তবে তা আপনার কোম্পানিকে অনেক দূর এগিয়ে নিতে সাহায্য করবে। তো চলুন জেনে নেই এ বিষয়ে কর্মচারীদের কী ধরনের প্রশ্ন করা যেতে পারে।

  • আপনার ধারণাগুলো যদি এমন কারো কাছে ব্যাখা করতে হয় যিনি আপনার ভাষায় কথা বলে না, সেক্ষেত্রে আপনি তাকে বোঝানোর জন্য কী কী পদ্ধতি গ্রহণ করবেন?
  • ধরুন আপনি এখন মার্কেটিং এ আছেন। এক্ষেত্রে আপনার কোনো ধারণাকে কাজে রূপ দেওয়ার জন্য আপনি আপনার ফাইন্যান্স টিমকে কিভাবে প্রভাবিত করবেন? সেইসাথে আপনার ধারণাটি কিভাবে প্রোডাকশন টিমের সাথে সমন্বয়পূর্ণ হবে?

    source:sanodelucas.cl

  •  যখন আপনি আপনার ধারণাটিকে কাজে রূপ দিতে যাচ্ছেন তখন আপনি কিভাবে সবাইকে বোঝাবেন যে, এতে শুধু আপনার নিজেরই লাভ না বরং পুরো দলেরই লাভ?

আপনার কর্মচারীদেরকে আরও দক্ষ করে তুলতে এবং সেরা কর্মচারীদের কাছে থেকে আরও ভাল ফলাফল পেতে উপরের প্রশ্নগুলো একবার হলেও করে দেখুন। এগুলোর বাইরেও আপনি তাদেরকে অন্যান্য বিষয়ে চিন্তা করার জন্য অনুপ্রাণিত করতে পারেন। তারপর দেখুন সফলতার দরজা কিভাবে খুলে যায় আপনার চোখের সামনে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *