আপনার ব্র্যান্ডের প্রচার শুরুর আগে যে বিষয়গুলো সম্পর্কে ভেবে নিতে হবে

প্রত্যেকটি নতুন উদ্যোক্তা এ কথা জানেন যে, ব্যবসার ক্ষেত্রে প্রচার কতটা গুরুত্বপূর্ণ। যে কোনো কোম্পানির প্রচার যত বেশি ইতিবাচক হবে, সে কোম্পানির বিক্রি ও লাভ তত বেশি হবে। পাশাপাশি তা আরো বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করতে সক্ষম হবে এবং কোম্পানির জন্য মেধাবী ও দক্ষ কর্মী খুঁজে পাওয়াও সহজ হবে।

ছবিসূত্রঃ Business 2 Community

কিন্তু প্রায়শই দেখা যায়, নতুন উদ্যোক্তারা তাদের কোম্পানির প্রচারের ক্ষেত্রে কিছু জিনিস না ভেবেই খুব তাড়াহুড়ো করে ফেলেন, ফলে তারা আশানুরূপ ফল পান না। কিন্তু এই প্রচার তথা জনসংযোগ কাজের জন্যেও কিছু কৌশল আপনাকে অবলম্বন করতে হবে।

এখানে সেরকম কিছু টিপস নিয়ে আলোচনা করা হলো। এতে আপনি আপনার কোম্পানির প্রসারের কথা মাথায় রেখে সুপরিকল্পিতভাবে  প্রচার করতে পারবেন, আশানুরূপ ফলও পাবেন।

১. বিভিন্নজনের সাথে অন্তরঙ্গতা বা খাতির গড়ে তুলুন

যে কোনো পেশাদারি জনসংযোগ কাজের ক্ষেত্রে গণমাধ্যম এবং প্রভাবশালী ব্যক্তিবর্গের সাথে অন্তরঙ্গতা বৃদ্ধি করা অত্যন্ত কার্যকরী কৌশল। কিন্তু এ কাজের জন্য যে সবসময় একজন পেশাদার জনসংযোগ কর্মকর্তার প্রয়োজন হবে তা নয়। কোম্পানির সংশ্লিষ্ট যে কোনো ব্যক্তি এমনকি প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কিংবা সহ-উদ্যোক্তা বা অন্যান্যরাও যে কোনো গণমাধ্যম কর্মীর সাথে যোগাযোগ করে পারস্পরিক কাজ ও লেনদেনের মাধ্যমে সহজেই সুসম্পর্ক গড়ে তুলতে পারেন।

ছবিসূত্রঃ Your Article Library

এজন্য আগে খোঁজ নিয়ে নিন, কোন কোন গণমাধ্যম কর্মীরা আপনার কোম্পানি কিংবা বা আপনার প্রতিযোগী কোম্পানি সংক্রান্ত বিষয়ে পূর্বে কোনো মতামত, প্রতিবেদন বা কোনো তথ্য প্রকাশ করেছে বা  আপনার ব্যবসা বা পণ্য সংক্রান্ত বিষয়ে কাদের আগ্রহ রয়েছে।

এরপর প্রথমে তাদেরকে মেইল বা ফোনের মাধ্যমে কোনো বিনোদনমূলক অনুষ্ঠানে তাদের আমন্ত্রণ জানান ও পরিচিত হোন। ধীরে ধীরে আপনার কোম্পানির পণ্য কিংবা ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সুচতুর উপায়ে তাদের কাছে ব্যাখ্যা করুন যেন আপনার কোম্পানির প্রচার সংক্রান্ত কাজ করতে তারা আগ্রহী হন।

২. যথাযথ প্রস্তুত হবার পর প্রচারের জন্য জনসংযোগ কর্মকর্তা নিয়োগ দিন

অনেক কোম্পানি আছে, যারা ঠিকভাবে প্রস্তুত হবার আগেই কোম্পানির প্রচারের কাজ শুরু করে দেয়। ফলে প্রচুর মিডিয়া কাভারেজ  সত্ত্বেও আশানুরূপ বিক্রি বা লাভ হয় না। এক্ষেত্রে নিয়ম হলো, প্রচার শুরু করার আগেই কোম্পানির পণ্যগুলো বাজারে ছেড়ে দিতে হবে যেন ক্রেতারা সহজেই পছন্দসই পণ্য কিনতে পারেন।

ছবিসূত্রঃ The Hoffman Agency

তবে ছোটোখাটো ব্যবসার ক্ষেত্রে অনেক সময় ব্যবসায়ীরা ফান্ড বৃদ্ধির জন্য আগে থেকেই পণ্যের প্রচার করে থাকেন। তবে পণ্য প্রস্তুত করার আগে প্রচারে বিশাল অংকের অর্থ ব্যয় করা মোটেই বুদ্ধিমানের কাজ নয়। এমনকি শুরুর দিকেও পেশাদারভাবে যেমন,  জনসংযোগ কর্মকর্তার নিয়োগ, ব্যয়বহুল বিজ্ঞাপন ইত্যাদি প্রচার না করে বরং সাধারণ পন্থা অবলম্বন করা যেতে পারে।

যেমন, প্রাথমিক পর্যায়ে প্রচারের জন্য জনসংযোগ ফ্রিল্যান্সার বা এজেন্সির সাহায্য নেয়া যেতে পারে। আবার প্রোডাক্ট রিভিউ নিয়ে যারা কন্টেন্ট তৈরি করেন, তাদের মাধ্যমেও স্বল্প খরচে পণ্যের প্রচার করা সম্ভব।

যে সব কোম্পানি নিজেরা প্রস্তুত হবার আগেই প্রচার নিয়ে তাড়াহুড়ো করে, তাদের অধিকাংশই এক সময় গিয়ে বুঝতে পারে যে, প্রচারের পেছনে তাদের ব্যয়িত অর্থ কেবল অপব্যয় ছাড়া আর কিছুই নয়।

৩. কোম্পানির প্রচারের আগে নিজেকে একজন শিল্পবিশেষজ্ঞ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করুন

নিজের কোম্পানির প্রচারের আগে উদ্যোক্তাদের আগে নিজ ব্যবসা ও তার পারিপার্শ্বিক অবস্থা নিয়ে পর্যাপ্ত জ্ঞান অর্জন করা উচিত। যেমন, আপনার কোম্পানির প্ল্যাটফর্ম যদি হয়ে থাকে দক্ষ প্রকৌশলী নিয়োগ সম্পর্কিত, তবে আপনাকে খুব ভালোভাবে জানতে হবে, কীভাবে মেধাবী ও দক্ষ কর্মীদের কাজে লাগাতে হয়। অর্থাৎ নিজ ব্যবসার লক্ষ্য, কার্যক্রম ও কুটকৌশল সম্পর্কে সম্যক জ্ঞান থাকতে হবে উদ্যোক্তাদের।

ছবিসূত্রঃ careers.college.indiana.edu

শুধু জ্ঞান থাকলেই হবে না, উদ্যোক্তা নিজে যে একজন দক্ষ শিল্প-বিশেষজ্ঞ, সে সম্পর্কে অন্যদের জানান দেয়াটাও জরুরি । অর্থ্যাৎ উদ্যোক্তাদেরও ইতিবাচক পরিচিতি থাকা আবশ্যক, যা পণ্যের প্রচারেও সহায়ক ভূমিকা পালন করে।

নিজের পরিচিতি বাড়ানোর জন্য উদ্যোক্তারা ব্যবসা সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় যেমন, পণ্য, ব্যবসায়িক চিন্তাধারা, সমকালীন অবস্থা ইত্যাদি নিয়ে প্রবন্ধ লিখে সেগুলো গণমাধ্যমে প্রচার করতে পারেন। বিভিন্ন সামাজিক গণমাধ্যম যেমন, ফেসবুক, লিংকডইন, টুইটার ইত্যাদিতে নিজের প্রোফাইলে ব্যবসা সংক্রান্ত পোস্ট দিতে পারেন কিংবা কমেন্টের মাধ্যমে বিভিন্ন ব্যবসায়িক আলোচনা সমালোচনায় অংশ নিতে পারেন।

৪. প্রচার কাজে কৌশল অবলম্বন করুন

যদি আপনি আপনার কোম্পানি সম্পর্কে বড় কোনো ঘোষণা বা খবর প্রচার করতে চান, তবে  তা যেন দ্রুত দর্শকদের চোখে পড়ে, সেজন্য কিছু কৌশল অবলম্বন করুন। যেমন, খবরটি প্রচারের জন্য ডজনখানেক সাংবাদিককে নিয়োজিত না করে একজন ভালো সংবাদদাতার সাথে যোগাযোগ করুন। যখন একজন রিপোর্টার একটি নতুন ও ব্যতিক্রমী বিষয়ে রিপোর্ট লেখার সুযোগ পাবেন,তখন তিনি সময় দিয়ে ভালোভাবে কাজটি করার চেষ্টা করবেন।

ছবিসূত্রঃ impact-africa.com

তাছাড়া প্রচারের আগে ডিজিটাল এবং পেশাদার বাস্তবজগৎ সম্পর্কে ভালোভাবে ধারণা রাখতে হবে। যে কোনো খবর নানা ভাবে নানা আঙ্গিকে প্রকাশ করা যায়। আবার বিভিন্ন গণমাধ্যমের দর্শকসংখ্যাও বিভিন্ন। তাই প্রচারের আগে বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেল, সংবাদপত্র, ইন্টারনেট ব্লগ ইত্যাদি মাধ্যমগুলো সম্পর্কে ভালোভাবে খোঁজ নিতে হবে। কোথায় কীভাবে পণ্যের প্রচার করলে কেমন সাড়া পাওয়া সম্ভব, তা আন্দাজ করে নিতে হবে।

প্রচারের আগে এ বিষয়গুলো মাথায় রাখলে স্বল্প ব্যয়ে পণ্যের প্রচার করে আশানুরূপ ফল পাবেন।

Featured Image: Franchise India

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *